স্টেডিয়ামের আশপাশের বাড়ির ছাদে পুলিশ। রাস্তায় পুলিশ। স্টেডিয়ামের গেট থেকে মাঠ পর্যন্ত পুলিশ ছাড়া আর কেউ নেই। বিলাসবহুল গাড়িতে চড়ে এমন নিরাপত্তার ভেতর দিয়ে রবিবার মিরপুর স্টেডিয়ামে ঢুকেছে ইংল্যান্ড দল।

বাংলাদেশের ইতিহাসে কোনো ক্রিকেট দলকে এমন নিরাপত্তা দেওয়া হয়নি। ইংলিশ ক্রিকেটারদের আবাস রেডিসন হোটেল থেকে শুরু করে মিরপুর হোম অব ক্রিকেটেও কঠোর নিরাপত্তাবেষ্টনী। হোটেলের চারপাশ নিরাপত্তাবলয় তৈরি করে রেখেছে নিরাপত্তা সংস্থাগুলো। মিরপুরে ক্রিকেট একাডেমির আশপাশের ভবনগুলোর ছাদে দায়িত্বে রয়েছেন পুলিশ সদস্যরা। এ ছাড়া পুরো স্টেডিয়ামই মোড়া নিরাপত্তার চাদরে।

শুক্রবার ঢাকায় পৌঁছে গতকালই প্রথম মাঠে আসেন ইংলিশ ক্রিকেটাররা। ওই সময় স্টেডিয়ামের চারপাশ ঘিরে রাখেন নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা। আগে থেকে দিয়ে রাখা নির্দেশনা অনুযায়ী স্টেডিয়ামের কাছের দোকানপাট বন্ধ ছিল। ইংলিশ ক্রিকেটারদের বহন করা গাড়ি প্রবেশের আধাঘণ্টা আগে স্টেডিয়ামের সামনের রাস্তা বন্ধ করা হয়। ঢাকায় ইংলিশদের প্রথম অনুশীলনের জন্য রাখা হয়েছে আটজন স্থানীয় নেট বোলার। সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা পর্যন্ত অনুশীলন করেন ইংল্যান্ড দল।

পক্ষান্তরে অন্যদিকে ইংলিশদের বিপক্ষে টাইগারদের ওয়ানডে সিরিজের প্রস্তুতি শুরু হবে আজ থেকে। সোমবার দুপুর আড়াইটা থেকে সন্ধ্যা সাড়ে ৫টা পর্যন্ত অনুশীলন করবে টাইগাররা। আর ইংলিশরা অনুশীলন সেরে নেবে সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১টার মধ্যে।

বিসিবি সূত্রে জানা গেছে, আজ অনুশীলনের পাশাপাশি সংবাদ মাধ্যমের সঙ্গে কথা বলবেন দলটির অধিনায়ক এবং কোচ। তারপর কঠোর নিরাপত্তার ভেতর দিয়ে তাদের নিয়ে যাওয়া হবে হোটেলে।