দ্বিতীয়বারের মত এমপি নির্বাচিত হয়েছেন বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত লেবার দলীয় প্রার্থী ড. রূপা হক। তাঁর নিকটতম কমজারভেটিভ দলীয় প্রার্থীকে ১৩ হাজার ৭শ ৬৫ ভোটের ব্যবধানে পরাজিত করে গ্রেটার লন্ডনের ইলিং সেন্ট্রাল ও একটন থেকে দ্বিতীয় বারের মত এমপি নির্বাচিত হলেন তিনি। তাঁর প্রাপ্ত ভোটের পরিমান ৩৩ হাজার ৩৭। নিকটতম কনজারভেটিভ দলীয় প্রার্থী পেয়েছেন ১৯ হাজার ২শ ৭২ ভোট।

১৯৭২ সালে জন্ম নেয়া রূপা হকের বাবা মোহাম্মদ হক এবং মা রওশন আরা হক। ১৯৬০ সালে রূপা’র বাবা মা ব্রিটেনে স্থায়ীভাবে বসবাসের জন্য পাড়ি জমান। ৩ বোনের মধ্যে সবার বড় বোন নূরা হক একজন স্থপতি, রূপা হক ছিলেন বিখ্যাত কিংসটন কলেজের সোশিওলজি ও ক্রিমিনোলোজির শিক্ষকতার পাশাপাশি মূলধারায় লেখালেখি করেন, ছোটবোন কনি হক বিবিসির বিখ্যাত ব্লু পিটার অনুষ্ঠানের উপস্থাপিকা ছিলেন।

২০১৩ সালে ইলিং সেন্ট্রাল ও একটন এর জন্য লেবার দলের মনোনয়ন পান ড. রূপা হক। ২০১৫ সালের নির্বাচনে চারদিকে কনজারভেটিভের জয়গান থাকলেও শেষ পর্যন্ত ব্রিটিশ পার্লামেন্টের টিকেট নিজের করে নেন তিনি। কনজারভেটিভ প্রার্থী ও ততকালীন এমপি এনগি ব্রে’কে মাত্র ২৭২ ভোটে পরাজিত করেন রুপা হক। কনজারভেটিভের নিশ্চিত এই আসনে তিনি ২২ হাজার ২টি ভোট পান।

২০১৫ সাল থেকে মধ্যবর্তী নির্বাচনের আগ পর্যন্ত ইসলামোফোবিয়া, ব্রেক্সিট, বাসস্থান, চিকিতসা ইত্যাদি বিষয়ে পার্লামেন্টে বেশ সরব ছিলেন তিনি। রূপা ২০১৬ সালের অক্টোবরে লেবারের প্রথম সারির সংসদ সদস্যও তালিকাভুক্ত হোন। এছাড়া স্থানীয় সরকারের ক্রাইম প্রিভেনশন ছায়ামন্ত্রী হিসাবে যোগ দেন।