পার্ল এডভার্টাইজিংয়ের উদ্যোগে লন্ডনে তৃতীয় বারের মতো অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে বেঙ্গলী ওয়েডিং ফেয়ার ২০১৭।

এ উপলক্ষে মঙ্গলবার ডকলেন্ডের রেডিসন হোটেলে ইউকেতে তৃতীয় বেঙ্গলী ওয়েডিং ফেয়ারের পক্ষ থেকে এর ফেয়ার বিস্তারিত কার্যক্রম তুলে ধরতে এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। এতে লিখিত বক্তব্য রাখেন পার্ল এডভার্টাইজিংয়ের সিইও সোহানা আহমদ,
পরিচালক এবং চ্যানেল এসের সিনিয়র প্রযোজক আহাদ আহমদ।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে জানানো হয়,গত বছর লন্ডন এবং বার্মিংহ্যামে ব্যাপক সাফল্যের পর পার্ল এডভার্টাইজিং তৃতীয়বারের মতো লন্ডনে বেঙ্গলী ওয়েডিং ফেয়ার আয়োজন করতে যাচ্ছে।

আগামী ৭ মে কেনারিওয়ার্ফের হোটেল রেডিসনে বসছে লন্ডনে দ্বিতীয় বেঙ্গলী ওয়েডিং ফেয়ার ২০১৭। দুপুর ১২টা থেকে শুরু হয়ে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত চলবে এবারের ওয়েডিং ফেয়ার।

প্রথমবারের মতো ২০১৬ সালে পার্ল এডভার্টাইজিং লন্ডনে বেঙ্গলী ওয়েডিং ফেয়ারের সুচনা করে। প্রথম লন্ডন বেঙ্গলী ওয়েডিং ফেয়ার ইউকের বাঙালী কমিউনিটিতে ব্যাপক সাড়া পড়ে এবং ব্যাপক সাফল্য অর্জন করে। ইউকের অন্যান্য শহরে বসবাসরত বাঙালী কমিউনিটির মানুষের ব্যাপক উৎসাহের প্রেক্ষিতে একই বছরের ডিসেম্বরে বার্মিংহ্যামের আস্টন ভিলা ফুটবল স্টেডিয়ামে কাতার এয়ারওয়েজের পার্টনারশীপে অত্যন্ত সফলভাবে দ্বিতীয় বেঙ্গলী ওয়েডিং ফেয়ারের আয়োজন করে পার্ল এডভার্টাইজিং।

এতে বলা হয় , ওয়েডিং বা বিয়ের কেনাকাটা করার ক্ষেত্রে ইউকের বাঙালী কমিউনিটির জন্যে বেঙ্গলী ওয়েডিং ফেয়ার নতুন দ্বার উন্মোচন করেছে। ইউকেতে শুধু বাঙ্গালী কমিউনিতেই বিয়ে সংক্রান্ত ব্যয় হয়ে থাকে বছরে প্রায় ৭৬ মিলিয়ন পাউন্ড। পছন্দসই বর-কনের সঙ্গে সুন্দরভাবে একটি বিয়ের অনুষ্ঠান সম্পন্ন করতে হলে এক সঙ্গে অনেকগুলো কাজের সমন্বয় ঘটাতে হয়। কম সময় এবং অর্থ ব্যয় করে পরিকল্পনা অনুযায়ী বিয়ের অনুষ্ঠান সম্পন্ন করতে এবারো বেঙ্গলী ওয়েডিং ফেয়ার একই ছাদের নীচে সব সুযোগ নিয়ে আসছে সবার জন্যে।। তাই এই সুযোগটি কাজে লাগাতে কমিউনিটির সবাইকে আহ্বান জানানো হয়।

এবারের লন্ডন বেঙ্গলী ওয়েডিং ফেয়ারে লোকাল ওয়েডিং সার্ভিস, ওয়েডিং প্লানার্স, ক্যাটারার্স, ম্যাকআপ আর্টিস্ট, ফ্লোরিষ্টস, ফটোগ্রাফার্স, কারস, বিয়ের পোষাক, জুয়েলার্স, ডিজাইনার্স কোম্পানি, হেনা আর্টিস্টসহ বিয়ে স্বাদী সংক্রান্ত প্রায় ৩৫ ধরনের প্রদর্শনী থাকবে। থাকছে ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানী এবং ওয়েডিং ম্যারেজ সার্ভিসও। কমিউনিটির জনপ্রিয় প্রেজেন্টার নাদিয়া আলীর উপস্থাপনায় দুপুর ১২টা থেকে বিকেল ৬টা পর্যন্ত চলবে বেঙ্গলী ওয়েডিং ফেয়ার। দুপুর আড়াইটা থেকে শুরু হবে ফ্যাশন শো। ফ্যাশন শোতে বিয়ের পোষাকসহ সর্বশেষ ডিজাইনের পোষাকগুলোর প্রদর্শন করবেন ইউকের খ্যাতনামা মডেলরা। এছাড়া ভেন্যু, ক্যাটারিং, আউটফিটস, স্টেইজ ডেকোরেশন, ম্যাকআপ আর্টিস্ট, হেনা আর্টিস্ট, ফটোগ্রাফি, থিমস এবং স্টাইল, বিয়ের পছন্দনীয় পোশাক অর্ডার এবং ডেলিভারি দেয়ার ক্ষেত্রে সহযোগিতার জন্যে ওয়েডিং ফেয়ারে ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানীসহ অন্যান্য পেশাদাররা উপস্থিত থাকবেন।

রামাদানের পরপরই পবিত্র ঈদ উল ফেতর উদযাপিত হবে। রামাদান এবং ঈদের আগেই পরিবারের যে কারো বিয়ের অনুষ্ঠান পরিকল্পনায় সহযোগিতা করতে এবং সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে বেঙ্গলী ওয়েডিং ফেয়ার বিশেষভাবে ভুমিকা রাখবে বলে এত দৃঢ় আশাবাদ ব্যাক্ত করা হয়।

তৃতীয় বেঙ্গলী ওয়েডিং ফেয়ারে বৃটিশ বাংলাদেশী বিখ্যাত মডেল এবং মিস মিডল ইস্ট খ্যাত ভাষা মুখার্জিসহ ইউকের মডেলরা ফ্যাশন শোতে অংশ নেবেন। সঙ্গে থাকবেন বাংলাদেশে বিখ্যাত ওয়েডিং ব্লগার হায়রে লন্ডন, বাবলগ্যাম হিজাব, ক’মশ অফিসিয়াল, আমানি আলম এবং রামজান মিয়া। এবারের ওয়েডিং ফেয়ারে কোরিও গ্রাফার হিসেবে কাজ করবেন চায়না চৌধুরী। আর ডিজাইনার হিসেবে থাকছে এক্সক্লুসিভ ব্রাইডাল এন্ড ঈদ আউটফিটস, কালার শাড়িস, হাওয়া কচর, সারাইয়া ফ্রম দ্যা হার্ট, ফারিদা রশীদ, এবং বাবলগ্যাম হিজাব।

বেঙ্গলী ওয়েডিং ফেয়ারে স্পন্সর পার্ল ব্ল্যাঙ্ক, হোটেল রেডিসন, ডাইরেক্ট ফানটম হায়ার, চ্যানেল এস, লন্ডন টি এক্সচেঞ্জ, এলিস্ট ডিস্টিবিউটর, ইমপ্রেস মিডিয়া, পিকচার দ্যাট, শাকিরা আলী ম্যাকআপ একাডেমী, আল ইহসান ম্যারিজ সার্ভিস, রোস্টার প্যারি প্যারি এবং মুসলিম এইড এর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানানো হয়। এছাড়াও অনুষ্ঠানটিকে সাপোর্টের জন্য লন্ডন টাইগার্স, এ্যাপেক্স একাউন্টেন্স, বৃটিশ বাংলাদেশী হুজ হু, এটিএন বাংলা, বাংলা টিভি, চ্যানেল আই, জনমত, বাংলা পোস্ট, সাপ্তাহিক দেশ এবং এলবি২৪ অনলাইন ও ইউকেবিডি টাইমস অনলাইন এর প্রতি ধন্যবাদ জানানো হয়।

সংবাদ সম্মেলনে আরো বলা হয় ,বিয়ে মানব জীবনের একটি গুরুত্বপূর্ণ ও অনিবার্য বিষয়। সকল দেশে .. সকল সমাজে বিয়ের রয়েছে নানারকম রীতি পদ্ধতি। ধর্ম-সংস্কৃতি ও সামাজিক মুল্যবোধের আলোকে বিভিন্ন সমাজ ও কমিউনিটিতে বিয়ের সাজসজ্জা কিংবা আনুষ্ঠানিকতায়ও রয়েছে ভিন্নতা। যেমন বিয়ের বাঙ্গালি সাজ কিংবা বাংলাদেশীদের বিয়ের আয়োজন অন্য কমিউনিটির চেয়ে কিছুটা ব্যাতিক্রম। বাঙালির বিয়েতে বেনারসী শাড়ী, গায়ে হলুদ, কনের খোপায় ফুল, হাতে মেহেদির রংয়ের বাহার, সময়ের সঙ্গে মিল রেখে মেক আপ, আলতা পায়ে বিশেষ জুতা, বরের শেরোয়ানিসহ কতকিছুর যোগ হয়। কিন্তু লন্ডনের যান্ত্রীক জীবনে এক সঙ্গে এসবের সমাহার ঘটানো নিত্যান্তই কঠিন ব্যাপার। লন্ডনের যান্ত্রীক ও ব্যস্ত জীবনে অল্পসময়ের ভেতরে যারা বিয়ের এতোসব আয়োজন সম্পন্ন করতে চান, তাদেরকে লন্ডন বেঙ্গলী ওয়েডিং ফেয়ারে আসতে বিশেষভাবে আহ্বান জানানো হয়।

তৃতীয় বেঙ্গলী ওয়েডিং ফেয়ারটি সফল ও সার্থকভাবে উদযাপন করার জন্যে সাংবাদিক দের সহযোগিতা কামনা করা হয় । একই ছাদের নীচে বিয়ে সংক্রান্ত সব আয়োজনসম্পন্ন করার যে সুযোগ সামনে আসছে, সেই বার্তাটি সংবাদের মাধ্যমে ইউকে ও ইউরোপে বাঙালীদের ঘরে ঘরে পৌঁছে যাবে বলে আশা প্রকাশ করা হয় । এতে স্বপরিবারে লন্ডন বেঙ্গলী ওয়েডিং ফেয়ারে আসার জন্য সকলকে আমন্ত্রন জানানো হয় । লন্ডন বেঙ্গলী ওয়েডিং ফেয়ার সবার জন্যে উন্মুক্ত থাকবে ।সংবাদ সম্মেলনে আরো বক্তব্য রাখেন লন্ডন বাংলা প্রেসক্লাব প্রেসিডেন্ট সৈয়দ নাহাস পাশা ,সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ জুবায়ের সহ মূল স্পন্সর প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিরা।