সেজেগুজে কলকাতার উদ্দেশে খুলনা স্টেশন ছাড়লো প্রথম যাত্রীবাহী ট্রেন মৈত্রী এক্সপ্রেস-২। শনিবার (০৮ এপ্রিল) সকাল ৮টা ১০ মিনিটে খুলনা-কলকাতা রুটে পরীক্ষামূলকভাবে ট্রেনটি ছাড়া হয়।

উদ্বোধনী এ ট্রেনে করে বেনাপোল পর্যন্ত যাচ্ছেন রেলওয়ের স্থায়ী কমিটির সদস্য মিজানুর রহমান মিজান এমপিসহ সাধারণ মানুষ। ট্রেনটিতে রেলওয়ের পদস্থ কর্মকর্তারা যাত্রী হিসেবে রয়েছেন।

স্টেশনে উপস্থিত থেকে ট্রেনটিকে বিদায় জানান খুলনা রেলওয়ের স্টেশন মাস্টার কাজী আমিরুর ইসলামসহ হাজারও উৎসুক জনতা। ইতিহাসের সাক্ষী হতে সাজানো ট্রেনটির সাথে সেলফি তুলেছেন উৎসুক অনেকেই।

ফুল ও রঙিন কাপড় দিয়ে সাজানো সাদার মাঝে লাল সবুজ রেখা টানা ৫টি বগির ট্রেনটি  খুলনা-যশোর-বেনাপোল-পেট্রাপোল-বনগাঁ হয়ে কলকাতার শিয়ালদহ স্টেশনে পৌঁছাবে। পথে সকাল ১০টায় বেনাপোলে স্থল বন্দরে খুলনা-কলকাতার মধ্যে পরীক্ষামূলক আন্তঃদেশীয় ট্রেনটি নয়াদিল্লি থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী উদ্বোধন করবেন।

বেনাপোল স্টেশন থেকে রেলপথমন্ত্রী মুজিবুল হক এই ভিডিও কনফারেন্সে যোগ দেবেন। অনুষ্ঠানের পর ট্রেনটি কলকাতা যাবে এবং রোববার (০৯ এপ্রিল) সকাল ৮টা ৫ মিনিটে কলকাতা থেকে খুলনায় ফিরে আসবে।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, আনুষ্ঠানিকভাবে ট্রেনটি চালু হলে খুলনাবাসীর অনেক দিনের স্বপ্নপূরণ হবে। বেনাপোল স্থলবন্দর হয়ে সাড়ে ৩ ঘণ্টায় তারা যেতে পারবেন কলকাতায়। নিরাপদ ও স্বাচ্ছন্দে  রোগী, পর্যটক, ব্যবসায়ীরা কলকাতায় পৌঁছাতে পারবেন। এতে দুই দেশের আমদানি-রফতানি বাণিজ্যের সম্প্রসারণও ঘটবে।