আবু বকর ইয়ামিন ।।

প্রধানমন্ত্রীর হাত থেকে বাংলা বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কার-২০১৬ গ্রহণ করলেন সাত কবি, সাহিত্যিক, প্রাবন্ধিক ও গবেষক।

পুরস্কারপ্রাপ্তরা হলেন- কবিতায় আবু হাসান শাহরিয়ার, কথাসাহিত্যে শাহাদুজ্জামান, প্রবন্ধ ও গবেষণায় মোরশেদ শফিউল হাসান, অনুবাদ সাহিত্যে ড. নিয়াজ জামান, আত্মজীবনী ও স্মৃতিকথা, ভ্রমণকাহিনিতে নূরজাহান বোস, শিশুসাহিত্যে রাশেদ রউফ এবং মুক্তিযুদ্ধ সাহিত্যে ডা. এম এ হাসান।

বুধবার অমর একুশে গ্রন্থমেলা উদ্বোধনের আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন। পুরস্কারপ্রাপ্তদের প্রত্যেককে এক লাখ টাকা সমমূল্যের চেক ও ক্রেস্ট তুলে দেন তিনি।

এর আগে গত ২৩ জানুয়ারি বাংলা একাডেমিতে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে পুরস্কারের জন্য মনোনীতদের নাম ঘোষণা করা হয়। ঘোষণাপত্র পড়ে শোনান বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক শামসুজ্জামান খান।

এ বছর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি এবং নাটকে পুরস্কারের জন্য কাউকে মনোনীত করা হয়নি। এ প্রসঙ্গে শামসুজ্জামান খান জানিয়েছেন, নাটক ও বিজ্ঞানবিষয়ক লেখায় জন্য উপযুক্ত কাউকে পাওয়া যায়নি বলে এ দুটি বিষয়ে এবার পুরস্কার দেওয়া হয়নি।

প্রসঙ্গত, ১৯৫৫ সালের ৩ ডিসেম্বর বাংলা একাডেমি প্রতিষ্ঠিত হয়। ১৯৬০ সালের ২৬ জুলাই তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানের গভর্নর দ্য বেঙ্গলি একাডেমি (এমেন্ডমেন্ট) অর্ডিন্যান্স জারি করেন। এর মাধ্যমে একাডেমির কার্যক্রমে কিছু পরিবর্তন আসে। তাদের কার্যাবলি সংশোধিত হয়ে সাহিত্য পুরস্কার প্রদান এবং বাংলা ভাষা, সাহিত্য ও সংস্কৃতি চর্চার ক্ষেত্রে আন্তর্জাতিক পুরস্কার প্রবর্তন করা হয়। তারই ধারাবাহিকতায় ১৯৬০ সাল থেকে বাংলা একাডেমি বাংলা সাহিত্যে অবদানের জন্য পুরস্কার দিয়ে আসছে। তবে ১৯৮৫, ১৯৯৭ এবং ২০০০ সালে পুরস্কারটি দেওয়া হয়নি।