আবু হোসেন পরাগ ।।

ক্রাইস্টচার্চ টেস্টে প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের ২৮৯ রানের জবাবে চতুর্থ দিনে ৩৫৪ রানে অলআউট হয়েছে নিউজিল্যান্ড। প্রথম ইনিংসে স্বাগতিকরা পেয়েছে ৬৫ রানের লিড।

সংক্ষিপ্ত স্কোর: ৯২.৪ ওভারে নিউজিল্যান্ড ৩৫৪।

সোহানের দারুণ রানআউটে অলআউট নিউজিল্যান্ড: সাকিবের বল স্কয়ার লেগে ঠেলে দুই রান নিতে গিয়েছিলেন নিল ওয়াগনার। তবে দ্বিতীয় রান নেওয়ার সময় তাকে দারুণভাবে রানআউট করেন উইকেটকিপার নুরুল হাসান সোহান। ফিল্ডারের পাঠানো বল এক হাতে ধরেই স্টাম্পে ছুড়ে মারেন সোহান। টিভি রিপ্লেতে দেখা যায়, বল স্টাম্প ভাঙার সময় ওয়াগনারের দুই পা-ই শূন্যে ভেসে ছিল, রানআউট। তাতে নিউজিল্যান্ডের ইনিংসও গুটিয়ে যায় ৩৫৪ রানে।

মিরাজের বলে সেঞ্চুরি-বঞ্চিত নিকোলস: সকাল থেকে আক্রমণাত্মক ব্যাটিংয়ে নিউজিল্যান্ডকে লিড এনে দেন হেনরি নিকোলস। ক্যারিয়ারের প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরির দিকেও এগিয়ে যাচ্ছিলেন তিনি। তবে বিপজ্জনক হয়ে ওঠা বাঁহাতি ব্যাটসম্যানকে ফিরিয়ে দেন মেহেদী হাসান মিরাজ। অফ স্টাম্পের বাইরের বল ডাউন দ্য উইকেটে এসে খেলতে চেয়েছিলেন নিকোলস, কিন্তু বল তার ব্যাটের কানা ছুঁয়ে আঘাত হানে স্টাম্পে। ১৪৯ বলে ১২টি চারে ৯৮ রান করেন নিকোলস। নিউজিল্যান্ডের স্কোর তখন ৯ উইকেটে ৩৪৩।

রিভিউ নিয়ে বাঁচলেন ওয়াগনার: তাসকিন আহমেদের বল নিল ওয়াগনারের পেডে লাগায় এলবিডব্লিউ দিয়েছিলেন আম্পায়ার। কিন্তু রিভিউ নিয়ে বেঁচে যান ওয়াগনার। বলের সামান্য অংশ লেগ স্টাম্পের বাইরে পড়ায় বদলায় আম্পায়ারের সিদ্ধান্ত।

আবার তাসকিনের বলে ক্যাচ মিস: দ্বিতীয় নতুন বলে নিজের দ্বিতীয় ওভারেই উইকেট পেতে পারতেন তাসকিন আহমেদ। গালিতে নিল ওয়াগনারের সহজ ক্যাচ ছাড়েন নাজমুল হোসেন শান্ত। ইনিংসের তাসকিনের বলে দ্বিতীয়বার ক্যাচ ছাড়লেন কোনো ফিল্ডার।

নিউজিল্যান্ডের তিন শ পার: দ্বিতীয় নতুন বল নেওয়ার আগের ওভারে কামরুল ইসলাম রাব্বির বলে টানা দুই চার হাঁকান নিকোলাস। তাতে তিন শ পেরিয়ে যায় নিউজিল্যান্ডের স্কোর।

নিউজিল্যান্ডের লিড: বাংলাদেশের চেয়ে ২৯ রানে পিছিয়ে থেকে চতুর্থ দিন শুরু করেছিল নিউজিল্যান্ড। সকালে টিম সাউদির উইকেট হারিয়ে প্রথম ইনিংসে লিড নেয় কিউইরা। ৭৯তম ওভারে সাকিবের বল নিল ওয়াগনারের পায়ে লেগে চার হওয়ার সময় বাংলাদেশের ২৮৯ রান পেরিয়ে যায় স্বাগতিকরা।

সাউদিকে ফেরালেন সাকিব: দিনের তৃতীয় ওভারে রাব্বির বলে সাউদির ক্যাচ ফেলেছিলেন মিরাজ। তবে দ্বিতীয়বার আর ভুল করেননি তিনি। ষষ্ঠ ওভারে সাকিবের বলে শর্ট এক্সট্রা কভারে সাউদির (১৭) ক্যাচ তালুবন্দি করেন মিরাজ। নিউজিল্যান্ডের স্কোর তখন ৮ উইকেটে ২৮৬।

ক্যাচ ফেললেন মিরাজ: দিনের তৃতীয় ওভারেই উইকেট পেতে পারতো বাংলাদেশ। কিন্তু কামরুল ইসলাম রাব্বির বলে স্লিপে টিম সাউদির ক্যাচ ফেলেন মেহেদী হাসান মিরাজ। সাউদির রান তখন ১৫।

তৃতীয় দিনের খেলা বৃষ্টিতে ভেসে গিয়েছিল। ঘাটতি পুষিয়ে নিতে চতুর্থ দিনের খেলা নির্ধারিত সময়ের আধ ঘণ্টা আগে স্থানীয় সময় সকাল সাড়ে ১০টায় শুরু হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু উইকেট ভেজা থাকায় সেটি সম্ভব হয়নি। খেলা শুরু হয় স্থানীয় সময় সকাল ১১টায় (বাংলাদেশ সময় ভোর ৪টা)। প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের ২৮৯ রানের জবাবে নিউজিল্যান্ড দ্বিতীয় দিন শেষ করে ৭ উইকেটে ২৬০ রানে। হেনরি নিকোলস ৫৬ ও টিম সাউদি ৪ রান নিয়ে চতুর্থ দিন শুরু করেন।