গোলাম সাদাত জুয়েল ।।
আমেরিকার ফ্লোরিডার হলিউড এয়ারপোর্টে শুক্রবার দুপুর ১২.৫৫ মিনিটে এক যাত্রীর গুলিতে ৫ জন মারা যায়। নিউজারসি জন্ম নেয়া ইসানবেল সানটিয়াগো (২৬) নামের যাত্রী টারমিনাল ২ এর ব্যাগেজক্লামে এসে তার ব্যাগ খুলে এলোপাথারি গুলি শুরু করে কোন কারন ছাড়া, সাথে সাথে পাচজন যাত্রী টারমিনাল টু এর লাগেজ কেরোসলে মারা যায়। সানটিয়াগো গুলি করে টারমিনালের দরজা দিয়ে বেরিয়ে গান ছুড়ে মেরে মাটিতে শুয়ে পড়ে প্রথম পুলিশ না অাসা পর্যন্ত। সানটিয়াগোর ব্যাগে ৯ এম এম লোডেড গান ছিল। পুটোরিকোতে বেড়ে উঠা ইসানবেল সেনাবাহিনীতে জড়িত চিল। সে ইরাকে সেনাবাহিনীতে কাজ করেছে। তার ভাই ব্রায়ান জানায়,সে খুব ভাল মানুষ ও ধার্মিক। সে বেশ কিছু দিন থেকে তাদের সাথে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ম ছিল যা অস্বাভাবিক মনে হয়েছিল। সে পুটোরিকো থেকে আালাস্কায় মুভ করে, আলাস্কায় সে সিকিউরিটি জব করত। সে শুক্রবার ডেলটার ফ্লাইটে আলাস্কা থেকে দুপুরে হলিউডের (ফোট লডারডেলে) এয়ারপোট অাসে। কোন কারন ছাড়া এলোপাথারী গুলিতে পুরো এয়ারপোর্ট অাতংক ছড়িয়ে পড়ে। যাত্রীরা সবাই দৌড়ে এয়ারপোট থেকে বেরিয়ে যান। পুলিশ পুরো এয়ারপোর্ট ঘিরে রাখে, বিমান চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয়। জরুরী অবস্তা জারি করে বিমান বন্দরে। শুক্লবার দুপুরবেলা লোকে লোকারন্ন চিল এয়ারপোর্ট। আমেরিকার ইতিহাসো ব্যাগেজ ক্লাইমে গুলাগুলি এই প্রথম।

আমেরিকার বিমানে কোন যাত্রী ব্যাগে গান বহন করতে পারে না। গান বহন করতে হলে বিমানে বিশেষ ব্যাবস্তায় তা এয়ারলাইন্স তাদের জিম্মায় করে থাকে। আলাস্কা বিমান বন্দরের নিরাপত্তাকর্মিরা সঠিক দায়িত্ব পালন করেনি। টিএসএ TSA নিরাপত্তারক্ষীরা উদাসীন ছিল। বিমানবন্দর এ গুলাগুলি ও ৫ জনের মৃত্যু সকল নাগরিকদের উদ্বীগ্ন করে তুলেছে।