প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যোগ্যতা, দক্ষতা ও প্রাজ্ঞতা দিয়ে বিশ্বের একমাত্র নেত্রী হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে সক্ষম হয়েছেন বলে দাবি করেছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ।

সোমবার বিকেলে রাজধানীর মিরপুর ও পল্লবী থানা আওয়ামী লীগের যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত সভায় তিনি এ কথা বলেন। আগামী ১০ জানুয়ারি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে দলের জনসভা সফল করার লক্ষ্যে এই যৌথসভা হয়। ঢাকা-১৬ আসনের সংসদ ও পল্লবী থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি ইলিয়াস উদ্দিন মোল্লার সভাপতিত্বে সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় বক্তব্য রাখেন ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সভাপতি একেএম রহমতউল্লাহ, সাধারণ সম্পাদক সাদেক খান, যুব মহিলা লীগের নেত্রী সাবিনা আকতার তুহিন এমপি প্রমুখ।

মাহবুব উল আলম হানিফ বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার দক্ষতা মেধা ও বিচক্ষণতা দিয়ে আমাদের এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন। তিনি ২৯টি পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন। বিশ্বের কোনো রাষ্ট্রনায়ক এত পুরস্কারে ভূষিত হননি। যে অর্জন আমাদের নেত্রী করেছেন।

তিনি আরো বলেন, বিশ্বব্যাংকের প্রধান এখন বলেন, বাংলাদেশ বর্তমান সরকারের অধীনে দেশ যেভাবে এগিয়ে চলছে এটা স্বল্পোন্নত সব দেশের কাছেই রোল মডেল হিসেবে বিবেচিত হতে পারে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামাও তার পিতৃভূমি কেনিয়াতে গিয়ে এক সুধী সভায় বলেছিলেন, স্বল্পোন্নত দরিদ্র দেশগুলোতে দ্রুত উন্নতি করার জন্য বাংলাদেশকে রোল মডেল হিসেবে বিবেচনা করতে পারেন। এটা সম্ভব হয়েছে শেখ হাসিনার কারণে।

হানিফ বলেন, জার্মানির প্রেসিডেন্ট অ্যাঞ্জেলা মার্কেলকে বিশ্বের সবচেয়ে বেশি প্রজ্ঞা ও প্রভাবশালী নেত্রী হিসেবে বলা হয়। জার্মানি একটি বিশাল রাষ্ট্র। ধনী দেশ। তারা জাতি হিসেবে শিক্ষিত। তাদের বিশাল সম্পদ। যা নিয়ে দেশের উন্নয়ন করা, দেশকে সঠিকভাবে পরিচালনা করা, খুব একটা কঠিন কাজ না। কিন্তু বাংলাদেশ একটি ছোট দেশ। বিশাল জনগোষ্ঠী। আমাদের সীমিত সম্পদ। সেটা নিয়ে যাত্রা করতে হয়েছে।

‘সেই দিক বিবেচনায় পৃথিবীর মধ্যে সবচেয়ে দক্ষ, যোগ্য, প্রাজ্ঞ এবং বিচক্ষণ নেত্রী হচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’ বলে দাবি করেন হানিফ।